বদ অভ্যাস থেকে মুক্তি!

বদ অভ্যাস
ad

দৈনন্দিন জীবনে মানুষের মধ্যে কয়েক ধরনের অভ্যাস প্রচারিত হয়েছে তার মধ্যে পপুলার একটি অভ্যাস হচ্ছে বদ অভ্যাস। এই পপুলার বদ অভ্যাস প্রত্যেকটা মানুষের মধ্যে নির্মিত থাকে। এমন কোন মানুষ এমন কোন মানব জাতি নেই যার মধ্যে কতগুলো অভ্যাস পরিচালিত হচ্ছে না সবার মধ্যেই কম বেশি খারাপ এবং ভালো অভ্যাস গুলো নির্মিত হচ্ছে। কথা হচ্ছে এই অভ্যাসগুলো থেকে আমরা স্বাভাবিক জীবনে কিভাবে বেঁচে থাকতে পারে অভ্যাসগুলোকে আমরা কিভাবে দূরে সরিয়ে দিয়ে নিজের জীবনকে আরো মধুময় সুখময় করতে পারি সে বিষয়ে একটু আলোচনা করা যাক।

সাধারণত আমরা জানি, মানুষ অভ্যাসের দাস! এরমধ্যে বদভ্যাস বেশি প্রচারিত হচ্ছে, অভ্যাস এমন এক সিস্টেম যা চাইলেও খুব সহজে বয়কট করা যায় না এটি থেকে মুক্তি পাওয়া অনেকটা কঠিন বিষয়। আপনার একটা অভ্যাস পরিবর্তন করতে লম্বা একটা সময় পরিশ্রম করতে হবে সেটা হতে পারে কয়েক বছর।

এখন আপনার বদভ্যাসটি যদি হয়ে থাকে কোন নেশা তামাক দ্রব্য খাওয়া সে ক্ষেত্রে এ ধরনের অভ্যাসগুলো বয়কট করা অথবা এ ধরনের বদ অভ্যাস গুলো থেকে নিজেকে মুক্ত করা অনেকটা কঠিন হয়ে পড়ে তাই সব ধরনের অভ্যাস কিন্তু সমান নয়। একটা নেশা কিন্তু বদ অভ্যাস এর মধ্যেই বিবেচিত এই বদ অভ্যাস থেকে বেঁচে থাকা অনেক কষ্টকর বটে।

এছাড়া মানুষের বিভিন্ন বদ অভ্যাস রয়েছে যার মধ্যে কিছু প্রচলিত- সকালবেলা অতিরিক্ত ঘুমানো, রাতে দেরিতে ঘুমানো, সময় মত খাবার না খাওয়া, হাতের নখ চিবানো, নিয়মিত ব্যায়াম না করা, বাড়ির কাজে মনোযোগী না হওয়া, লেখাপড়ায় মনোযোগী না হওয়া, স্মার্টফোনে সারাদিন লেগে থাকা, অকর্মার ঢেঁকি হয়ে ঘুরে বেড়ানো সহ বিভিন্ন বদ অভ্যাস রয়েছে যেগুলো আমাদের মধ্যে সচরাচর পরিচালিত হচ্ছে। এখন বিষয় হচ্ছে এই বদ অভ্যাস গুলো থেকে কিভাবে মুক্তি পাওয়া যায়?

বদ অভ্যাস থেকে মুক্তি!

একটা অভ্যাস পরিবর্তন করতে হলে আপনাকে লম্বা একটা সময় পরিশ্রম করতে হবে। একটা বদ অভ্যাস পরিবর্তন করায় আপনার পরিশ্রম অনেক তাই আগে জানতে হবে আপনার পরিশ্রম করার ক্ষমতা কতটুকু। আপনি যদি পর্যাপ্ত সময় দিয়ে বদ অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারেন সে ক্ষেত্রে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য।

ধরুন আপনি নেশার মধ্যে অ্যাট্রাক্টিভ কিংবা আসক্ত হয়ে গেছেন এখন এই নেশা থেকে বের হওয়ার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার মন থেকে চিন্তা করতে হবে এই নেশা কুফল কি কি সে বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে হবে। কারণ বদ অভ্যাস কখনো সফল হতে পারে না এটি কেবল মাত্র কুফলের ফলাফল বেশি পাওয়া যায়। বদভ্যাস মানেই কুফলের লিস্ট। আপনাকে চিন্তা করতে হবে এই নেশা যে আমি করতেছি একটু আমার শরীরের কোন উপকার নেই অথবা স্বাস্থ্যের কোন উপকার কিংবা ইনকাম হচ্ছে না তাহলে আমি কেন করব অথচ দেখা যায় বৈজ্ঞানিক ভাষায় এটি প্রচুর ক্ষতির দিক রয়েছে।

কোন মানুষ চায় না নিজে টাকা খরচা করে শরীরের ক্ষতি হোক তাহলে আমরা কেন যাচ্ছি এটা এটা কখনোই চাই না কিন্তু এটা নেশার মত কাজ করে এটা একটি নেশা আমরা এটা আসক্ত হয়ে গেছি চাইলেই আমরা এটা থেকে বের হতে পারি না। অতঃপর এটা থেকে বের হওয়ার জন্য আপনাকে প্রত্যেক সপ্তাহে মাত্র দুটো করে বিড়ি বা সিগারেট গ্রহণ করতে হবে, এরপরে কিছুদিন এইভাবে চলার পরে প্রত্যেক এক মাসে দুটো করে, এভাবে আরো কয়েক মাস চলার পরে কয়েক মাস পর মাত্র একটা অবশ্য এর মধ্যে আপনাকে অনেক পিনিক দিবে অনেক কষ্ট হবে কষ্ট গুলো আপনাকে সহ্য করতে হবে মিনিমাম এক থেকে দেড় বছর আপনাকে এ ধরনের কষ্ট সহ্য করতে হবে।

অতঃপর সর্বোপরি আপনি মুক্তি পেতে পারেন নেশা থেকে। আপনি চাইলেই তোর মুক্তি পেতে পারি না তাই এখানে নিজের অবদান থাকতে হবে অনেক বেশি আপনাকে জোর করে বেধে কেউ এ নেশা থেকে বের করতে পারবেনা। নিজের পরিচয় সবকিছু দিয়ে এখান থেকে বের হতে হবে। যেকোনো আব্বাস চাইলেই একদিন পরিবর্তন করতে পারবেন না, আপনি যে বদ অভ্যাসে আসক্ত সেই অভ্যাসটি করুন তবে খুব সীমিত ভাবে দেখা যায় খুব সীমিত ভাবে করতে করতে একসময় এটা অটোমেটিক চলে যাবে।

কথা সেটাই করুন না কেন সেটা অবশ্যই সিমা থাকতে হবে এবং একটা উদ্দেশ্য থাকতে হবে বয়কট করা আপনার উদ্দেশ্য থাকে এটা আমি ছেড়ে দেবো তখন দেখবেন এটা অটোমেটিক আপনাকে ছেড়ে যাচ্ছে কিন্তু আপনি যদি ইচ্ছে করেন যে আমি এটা করব তবে খুব অল্প কিন্তু তখন দেখবেন এটা আপনাকে ছেড়ে যাচ্ছে না।

Author: হেলথ টিপস ডেক্স

"Gslht" whose complete form is "Good Solution Line Health Tips" We all want our body to be good; we want our body and mind to be fresh all the time. If the body is good, everyone's mind becomes good.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *