নখের কুনি দূর করার উপায় ১০০% কার্যকারী এবং পরিক্ষিত

নখের কুনি দূর করার উপায়
ad

আসসালামু আলাইকুম! গুড সলিউশন লাইন হেলথ টিপস এর আরো একটি ব্লগে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে “নখের কুনি দূর করার উপায়” তাহলে চলুন আর অপেক্ষা কেন উপায় গুলো জেনে নেই।

আমাদের মধ্যে কিছু কিছু মানুষের হাত পায়ের নখ একটা নির্দিষ্ট জায়গা থেকে কালো বা নীলচে রং ধারণ করে, ধীরে ধীরে মরে যেতে দেখা যায়। বন্ধুরা এটা ভীষণ প্রদায়ক নখের একটা রোগ। এই রোগকে কেউ নখের কুনি কেউ নখের চিকা আবার কেউ কেউ লোকের দাগ বলে থাকে। মূলত এই রোগটি হয়ে থাকে এক ধরনের ফাঙ্গাসের আক্রমণের ফলে।

নখের কুনি অথবা নখের দাগ হওয়ার পিছনে নানা ধরনের কারণ কাজ করে, এর প্রধান কারণ হলো নখ পরিষ্কার না রাখা, নখের কুনি তে অথবা নখের আশেপাশে ময়লা জমে দাগ সৃষ্টি করে, তাছাড়া বারবার দীর্ঘসময় কাদার মধ্যে হাঁটাহাঁটি করলে, দীর্ঘ সময় হাত পা পানিতে ভিজিয়ে রাখলে, খালি পায়ে দীর্ঘ সময় থাকলে ও ভিটামিনের অভাবে এ রোগ হতে পারে।

নখের চিকা রোগের লক্ষণ:

নখের চিকা রোগের লক্ষণ হলো নখের একটি কণা প্রথমে কালো হয়ে যায়। এবং আস্তে আস্তে এর বিস্তার বাড়তে থাকে, নখে প্রচন্ড ব্যথা হয়, এক সময় নখ পেকে ওঠে, পুঁজ বের হয় এবং প্রচন্ড বাজে গন্ধ সৃষ্টি হয়।

তো বন্ধুরা আপনার যদি নখের এই ধরনের কোন সমস্যা থেকে থাকে তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাকে খুবই সহযোগিতা করবে আপনার এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য। অনুগ্রহ করে আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন এবং প্রতিনিয়ত “গুড সলিউশন লাইন হেলথ টিপস” এর সাথে থাকুন।

আরো হেলথ রিলিটেড আর্টিকেল পড়ুন-

নখের কুনি দূর করার উপায়:

শুধুমাত্র একটি পদ্ধতি অবলম্বন করেই আপনি আপনার হারিয়ে যাওয়া নখকে আবার ফিরে পাবেন।

ব্যবহারবিধি: বন্ধুরা বড় একটি শুকনো জাল (লঙ্কা) নিয়ে নিন, এরপরে একটা কাঁচি দিয়ে লঙ্কা টির বোটা থেকে কিছু অংশ কেটে ফেলুন। এবারে সহজ পদ্ধতিতে একটি কাঠি দিয়ে লঙ্কার মধ্যে থাকা বিচিগুলো বের করে ফেলুন। এবার লঙ্কার ঠিক মাঝ বরাবর একটা সুইচ অবাক কাঠি ভরে দিন। ঠিক যেমনটা নিচের পিকচারে দেখতে পাচ্ছেন।

এবার ফ্রেস লঙ্কা টির মধ্যে সরিষার তৈল আস্তে আস্তে করে ঢালতে থাকুন যতটা নিতে পারে লঙ্কা টি। এরপরে লঙ্কা টি কোন গ্যাসের চুলা কিংবা মুম অথবা গ্যাস লাইট এর উপরে ধরে রাখুন দেখবেন কিছুক্ষণ পর তেলটা ফুটতে শুরু করেছে। এবার এই ফুটন্ত তৈল আপনার আক্রান্ত স্থানে আস্তে আস্তে করে ঢালতে থাকুন। নখের কুনি দূর করার উপায়!

আরো সুস্বাস্থ থাকতে এই গুলো পড়ুন- এখানে ক্লিক করুন

সতর্কতাঃ বন্ধুরা মোটেও ভয় পাবেন না, আপনি যখন এই ফুটন্ত তৈল আপনার আক্রান্ত স্থানে ঢালবেন কিংবা ব্যবহার করবেন তখন একটু ব্যাথা লাগতেই পারে, কিন্তু আপনি যখন আপনার আক্রান্ত স্থানে আস্তে আস্তে করে তৈল লাগাতে থাকবেন তখন আপনার ব্যথা আস্তে আস্তে করে পালাতে থাকবে। নখের কুনি দূর করার উপায়! 

খেয়াল রাখবেন যেন আপনার আক্রান্ত স্থানে এবং আক্রান্ত স্থানে্র চারপাশে ভালোভাবে লাগে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে মাত্র ৭ দিন এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন দেখবেন আপনার নখের চিকা চিরতরে দূর হয়ে যাবে। দেখবেন এই পদ্ধত সাতদিন এপ্লাই করার ফলে আপনার নখের যে ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি হয়েছে সেটা মরে যাবে এবং আপনার নখ চিকা মুক্ত হয়ে যাবে। 

ফ্রেন্ডস, আপনারা যদি কাল নখ সাদা করতে চান তাহলে এই পদ্ধতিটি ১৫ থেকে ২০ দিন এপ্লাই করুন এবং এর রেজাল্ট দেখে আপনি নিজেই অবাক হয়ে যাবেন। এর কারণ আপনার আক্রান্ত স্থানটি পুনরায় আবার সাদা হয়ে যাবে এবং পূর্বের মত ধবধবে সাদা হয়ে যাবে। নখের কুনি দূর করার উপায়!

এই ছিল আমাদের আজকের আর্টিকেল। আশা করি আমাদের আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনি উপকৃত হয়েছেন কিংবা উপকৃত অবশ্যই হবেন। আমাদের আর্টিকেলটি আপনার ভাল লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন সেই সাথে আপনার মতামত অবশ্যই আমাদের জানিয়ে যান আর প্রতিনিয়ত এই ধরনের হেলফুল আর্টিকেল পেতে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

https://www.youtube.com/watch?v=1KfrgZBNadI

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *