রূপচর্চা করার জন্য তিনটি বিষয়ে অবশ্যই জানা দরকার

রূপচর্চা
ad

রূপচর্চা! রূপের সাথে চর্চা কথাটি সংশ্লিষ্ট ভাবে জড়িত। আসলে একটা মানুষের সব থাকুক বা না থাকুক কিন্তু একটা বয়সের পরে সে যদি প্রপার কেয়ার না নেয় তাহলে তার জন্মসূত্রে পাওয়া সৌন্দর্য একটা সময় নষ্ট হয়ে যায়। সে জন্য প্রয়োজন প্রপার কেয়ার আর সেটা প্রাকৃতিক উপকরণ দিয়ে সেই হাজার হাজার বছর আগে আয়ুর্বেদিক চর্চায় রূপচর্চা এসেছে।

তখন থেকেই কিন্তু তখনকার অর্জিত জ্ঞান থেকেই যে সমস্ত হাড় দিয়ে খুব সিম্পল উপকরণ দিয়ে নিজের রূপ চর্চা করেছেন আমাদের নানি দাদি তারা। তারা কিন্তু অপরূপ সুন্দরী ছিলেন এবং দেখা গেছে অনেকটা বয়স পর্যন্ত তারা সুন্দরী ছিলেন। আর সেটা একমাত্র সম্ভব হয়েছে রূপচর্চার যে প্রকৃতিক জিনিস সেগুলো ব্যবহার করে। আরেকটা জিনিস যেটা সেটা হচ্ছে বর্তমানে আমি বলব এই মুহূর্তে যারা রূপ চর্চা করেন তাদের জানতে হবে আপনার ত্বকের ধরন কি?

যদি এখানে স্কিন কেয়ার এর কথা আসে, তাহলে বলতে হবে স্কিন বেসিক এখানে তিন ধরনের বলবো! নর্মাল ওয়াইলি, ড্রাই এবং তৈলাক্ত। এখন কম্বিনেশন স্কিন এবং সেনসিটিভ স্কিন। এই পাঁচ ধরনের ত্বক হয়। আপনি যদি নিজেই না জানেন আপনার ত্বকের ধরন কি তাহলে আপনি কি নিয়ে চর্চা করবেন।

রূপচর্চা! রূপের সাথে চর্চা কথাটি সংশ্লিষ্ট ভাবে জড়িত

দেখা গেল আপনার স্কিন অনেক তৈলাক্ত কিন্তু সেখানে আপনি নরমাল স্কিন এর প্রোডাক্ট ব্যবহার করলেন এরকম প্রচুর হয়ে থাকে। স্কিন তৈলাক্ত কিন্তু তারা নরমাল স্কিন এর প্রোডাক্ট ব্যবহার করে স্কিনকে ও তৈলাক্ত করে ফেলে। এজন্য আমি বলব রূপচর্চার ক্ষেত্রে আপনার ত্বকের ধরন আপনার জন্য জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এই যে আমরা দেহটা নিয়ে বাস করছি আমাদের দেহের সবচেয়ে বড় অংশ হচ্ছে আমাদের স্কিন। উপরে ত্বকের যে প্রকারগুলো বললাম এই ত্বকের ধরন আমরা কয়জন জানি? তাছাড়া আমরা কিন্তু জানার চেষ্টা করি না। সবচাইতে বড় জিনিস, আপনারা যদি নিজেকে জানেন এবং বুঝেন তাহলে আপনারা এবাউট হবেন কোন পার্লারে গেলে পরে আপনাদের যা ইচ্ছা তাই কখনোই করতে পারবোনা সেজন্য আপনাদের কাছে আমাদের অনুরোধ রইল আজকাল প্রচুর মাধ্যম আছে আপনি চাইলে ইউটিউব দেখতে পারেন বই পড়াশোনা করতে পারেন এরপরে যদি আপনি রূপচর্চা করেন তাহলে আপনি প্রপার রেজাল্ট পাবেন।

স্কিনের তিনটে জিনিস অত্যন্ত জরুরী, স্কিনে মাস্টার্স দেওয়া, প্রটেকশন এবং ক্লিন করা এই তিনটা জিনিস যদি আপনি রেগুলার পুরো পুরি ভাবে করতে পারেন তাহলে আপনার স্ক্রীন সারাজীবন ভালো থাকার পসিবিলিটি বেশি। আর সৌন্দর্য কিন্তু ভেতর থেকে আসে এটা অবশ্যই মনে রাখতে হবে শুধু আপনাকে উপর দিয়ে যদি ক্লিন করেন এটা মাত্র আপনার ৫০% হয়ে থাকতে পারে এর বেশি নয় বাকি যে ৫০% রয়েছে সেগুলো আপনার লাইফ স্টাইল, আপনার ফুড হ্যাবিট আপনার চলাফেরা এগুলোর উপর ডিপেন্ড করে। সেই হাজার হাজার বছর আগে আয়ুর্বেদ শাস্ত্র বলে দিয়েছে যে সৌন্দর্য শুধুমাত্র আউট অ্যান্ড বিউটি নয়। আপনাকে সবকিছু মিলিয়ে একটা ডিসিপ্লিন লাইফ তৈরি করতে হবে এটা অত্যন্ত প্রয়োজন। আপনার অবশ্যই পরিমিত ঘুম দরকার একটা ব্যালেন্স ডায়েট দরকার এবং আপনার নিয়মিত একটা এক্সারসাইজ দরকার সবচাইতে বড় জিনিস দরকার সেটা হচ্ছে স্ট্রেস একেবারে ভুলে যেতে হবে।

অবশ্যই আপনার চেষ্টা থাকবে নিজেকে ঠান্ডা রাখতে নিজেকে ভালো রাখতে। আজকে বেশিরভাগ মানুষ দেখা যায় হারবাল টেনসনে ভুগে একটুতেই উত্তেজিত হয়ে যান আর আপনারা যখন উত্তেজিত হয় আপনাদের বডি থেকে অক্সিজেন লেভেল কমে যায় আর অক্সিজেন লেভেল কমলে তখন কিন্তু আমাদের স্কিনের উপর অনেক টাই ইফেক্ট করে সেজন্যই স্ক্রিনকে প্রটেক্ট করার জন্য প্রচুর পানি খাবেন, ফলমূল-শাকসবজি এগুলো খাবেন। তাহলে বুঝতেই পারছেন আপনি ফিট তাহলে আপনার শরীর ফিট আপনার স্ক্রিন ফিট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *